২৫ বছর ধরে নখ কাটেননি এই যুবক ! কিন্তু কেন? কারনটি জানলে চমকে উঠবেন

0
146

হাতের নখের প্রতি এই ব্যাক্তি মারাত্মক ভালবাসা, ফুলবাড়ীর এই বাসিন্দা অরুন কুমার সরকার (৩৪) বিগত পঁচিশ বছর ধরে নিজের হাতের নখ না কেটে এলাকায় রীতিমত বিখ্যাত হয়ে গেছেন। দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার লক্ষিপুর নামক স্থানে এই ঘটনাটি ঘটেছে। ফুলবাড়ী পৌর শহর থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার দূরে গড়ে ওঠা খয়েরবাড়ী ইউনিয়নের উত্তর লক্ষীপুর উচ্চ-বিদ্যালয়ের শিক্ষক হলেন রবীন্দ্রনাথ সরকার। তাঁর এক ছেলে এক মেয়ে, তাঁদের মধ্যে বড় ছেলে হল এই অরুন কুমার সরকার।

Ad

পরিবার সুত্রে জানা গেছে যে, ১৯৯৩ সালে অর্থাৎ প্রায় ২৫বছর আগে যখন অরুন কুমার সরকার প্রাইমারীতে চতুর্থ শ্রেনীর ছাত্র ছিলেন তখন তার মাত্র ৮ বছর বয়স ছিল, তখন সে কয়েক সপ্তাহ নখ না কাটার ফলে তার বড় নখ দেখে তাঁর ক্লাসের শিক্ষক তাকে নখ কাটার কথা বলেন, কিন্তু তখন এই নখ যদি আরেকটু বড় হলে তা কেমন দেখতে লাগে তা দেখার শখ হয় অরুনের! আর যা ভাবা তাইক আজ, দেখতে দেখতে আস্তে আস্তে অরুনের নখ বড় হতে থাকে।

এদিকে আস্তে আস্তে নখ বড় হবার সাথে সাথে নিজের নখের প্রতি অরুনের এক অন্যরকম ভালোবাসা জন্মায়, এর পর থেকেই সেই বড় নখের প্রতি ভালোবাসার কারনে সে আর কখনো নিজের তার নখ কাটতে চায়নি। লোকের মুখে মুখে অরুনের এই কীর্তির কথা শুনে প্রতিদিন বিভিন্ন এলাকা থেকে অনেকেই তাঁর বড় নখ দেখতে তার দোকানে আসেন।

অরুনের বাবা মা এবং আত্মীয় স্বজন তার এই নখ রাখার ব্যাপারে প্রথমে বাধা দিলেও পরে আর তারাও অরুনের বড় নখ রাখার ইচ্ছাতে কোনো বাধা দেননি। এইভাবেই অনেক বছর চলে যায়, অরুনের বড় হবার সাথে সাথে তার বামহাতে রাখা নখ গুলোও ঠিক তাঁর বয়সের মতোই বছরের পর বছর বড় হতে থাকে। অরুনের বিয়ে হওয়ার পরে তার একটি কন্যা সন্তান হয়। বর্তমানে অরুনের লক্ষিপুর বাজারে তার কন্যা সন্তানের নামে কান্না ডিজিট্যাল ফটো স্টুডিও নামে একটি ফ্লোক্সিলোডের দোকান রয়েছে।

সেখানে ছবি তুলে এবং ডিস সাপ্লাই এর ব্যবসা করেই সে তার পরিবারকে লালন পালন করে। অরুন কুমার সরকার বলেন যে, আমার এই হাতে বড় নখ রাখার ব্যাপারটা শখের বসেই আসে। তবে তিনি জানিয়েছেন যে, এতে তার কোনো রকম সমস্যা হয় না। নখগুলোর প্রতি তার মনে অনেক ভালোবাসা রয়েছে, তাই অরুন আর কখনোই তার নখ গুলো কাটবেন না বলে জানিয়েছেন। এমনিতেই যদি কোন কারনে তাঁর নখের কোনো অংশ একটু ভেঙ্গে যায়, তাতেই তিনি খুব কষ্ট পান বলেও জানিয়েছেন।

ad

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here